ফোল্ডেবল আইফোনে যেসব ফিচার থাকতে পারে!

অ্যাপলের পক্ষ থেকে এখনো নতুন ফোল্ডেবল আইফোনের নাম চূড়ান্ত হয়নি। ধারণা করা হচ্ছে এর নাম হবে আইফোন ফ্লিপ অথবা আইফোন ফোল্ড।

নাম নির্ধারণ করা না হলেও প্যাটেন্টের কল্যাণে এটি দেখতে কেমন হবে সে সম্পর্কে কিছু ধারণা পাওয়া যাচ্ছে।

অ্যাপলের পক্ষ থেকে প্রকাশিত এক বার্তায় ফোল্ডেবল আইফোনের সম্ভাব্য নকশা আঁচ করতে পারছে টেক বিশ্ব। যদিও নিশ্চিত ভাবে বলা যায় না যে, এটিই চূড়ান্ত নকশা। তবে ফোনটি বানানোর সময় অ্যাপল কোন কোন দিকে বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছে তা নিশ্চিত ভাবেই বলা যায়।

আইফোন ফোল্ডের প্যাটেন্ট দেখে ফোনটিকে অনেকাংশেই স্যামসাং গ্যালাক্সি জেড ফ্লিপের মত লাগে। গ্যালাক্সি জেড ফ্লিপ ও মটোরোলা রেজরের মত এতে আলাদা করে নোটিফিকেশন ডিসপ্লে থাকছে না। প্রধান ডিসপ্লের কিছু অংশ ভাঁজ করে রাখা অবস্থাতেও বের হয়ে থাকবে নোটিফিকেশন দেখার জন্য।

একাধিক ডিসপ্লে না থাকাতে এই ফোনটি তৈরির খরচ কিছুটা কমে আসবে আর ব্যাটারি খরচের দিক থেকেও স্যামসাং ও মটোরোলা থেকে কিছুটা সাশ্রয়ী হবে বলে ধারণা করা যায়।

যে প্যাটেন্টটি নিয়ে কথা হচ্ছে সেটা সম্পূর্ণ গুজবও হতে পারে। তাই এখনই আইফোন ফোল্ড কেনার জন্য পরিকল্পনা করে রাখা ঠিক হবে না।

এর আগেও আইফোনের ফোল্ড ফোনের গুজব ছড়িয়েছিল যা এখনো আলোর মুখ দেখেনি। বর্তমান যুগে ফ্যাশন দুনিয়াতে ফ্লিপ ফোনের একটা বাজার সৃষ্টি হচ্ছে। সে বাজারে আপাতত স্যামসাং ও মটোরোলা রাজত্ব করছে।

অ্যাপল বরাবরই অভিনব প্রযুক্তির পাশাপাশি মানুষের ফ্যাশনের চাহিদাকে গুরুত্ব দিয়ে আসছে। এই দৃষ্টিকোণ থেকেই আশা করা যায় ফোল্ডিং ফোনের এবারের গুজব হয়তো গুজব হয়েই থাকবে না।

আর/০৮:১৪/৯ জুলাই

সূত্রঃ দেশে বিদেশে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: