জিমেইলে কী হয়েছিল?

সাত ঘণ্টার চেষ্টার পর জিমেইল এবং জি সুইট ইমেইলের বাগ বা ত্রুটি ঠিক করতে সক্ষম হয়েছে গুগল। ফোর্বস এবং জেডিনেট জানিয়েছে, ত্রুটি এতটাই বিপজ্জনক ছিল যে একসঙ্গে অনেক ব্যবহারকারী প্রতারকদের খপ্পরে পড়তে পারতেন।

গুগল এই সমস্যায় পড়তে পারে সেটি গত এপ্রিলে আঁচ করেছিলেন প্রযুক্তি বিশ্লেষক অ্যালিসন হুসেন। ওই সময় তিনি গুগলকে বিষয়টি অবগতও করেন।
জিমেইলে বৃহস্পতিবার মূলত দুটি সমস্যা দেখা দেয়। একটি সেন্ডার পলিসি ফ্রেমওয়ার্ক (এসপিএফ) এবং আরেকটি ডোমেইন-বেসেড মেসেজে অথনটিকেশন, রিপোর্টিং অ্যান্ড কনফরমেন্সে (ডিএমএআরসি)। এই দুটি ফিচারকে ইমেইলের অন্যতম উন্নত সিকিউরিটি মান ধরা হয়।
ফিচার দুটির কারণে অন্যের মেইল ব্যবহার করে প্রতারণামূলক ইমেইল পাঠানো কঠিন হ্যাকারদের জন্য। কোনো মেসেজ সেন্ট হওয়ার আগে প্রেরকের ইমেইল অবশ্যই ডোমেইন মেইল সার্ভার থেকে ‘চেক পাস’ করতে হয়।
[ আরও পড়ুন : সেপ্টেম্বরে নতুন লুকে আসছে ফেসবুক ]
জিমেইলে এসপিএফ এবং ডিএমএআরসি দুটিই কিছু সময়ের জন্য সাপোর্ট করেছে। যার কারণে এই দুটি রুটের ত্রুটি কাজ লাগিয়ে প্রযুক্তিতে দক্ষ কোনো ব্যক্তির পক্ষে অন্যের জিমেইলের দখল নেয়া সম্ভব ছিল।
হুসেন গুগলকে জানান, তিনি ১৭ আগস্ট ত্রুটির বিষয়ে বিস্তারিত লিখবেন। গুগল তখন জানায়, ত্রুটি ঠিক হচ্ছে। পুরোপুরি ঠিক হতে ১৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সময় লাগবে।
কিন্তু ‍সেই এপ্রিল থেকে ১৩৭ দিন পেরিয়ে যাওয়ার পরও গুগল ত্রুটি ঠিক করতে বেশি সময় নেয়ায় ১৯ আগস্ট মানুষকে বিস্তারিত জানিয়ে দেন হুসেন।
নিজের দাবি প্রমাণ করতে তিনি গুগল.কমের ইমেইল অ্যাড্রেস ব্যবহার করে মেইলবক্সে পরীক্ষামূলক একটি মেইল পাঠান।
এই ব্লগ প্রকাশিত হওয়ার পরই নড়েচড়ে বসে গুগল। দ্রুত সমস্যা ঠিক করতে নেমে পড়েন কর্মকর্তারা। তখন বিশ্বজুড়ে বিভ্রাটে পড়েন ব্যবহারকারীরা।
যে ধরনের সমস্যা হয়েছিল: ডাউনডিটেকটরের জরিপ অনুযায়ী, শুক্রবার দুপুর পর্যন্ত সমস্যায় পড়া ব্যবহারকারীদের ৪৮ শতাংশ ফাইল অ্যাটাচ সংক্রান্ত বিভ্রাটের কথা জানিয়েছেন। ২০ শতাংশ লগইন করতে পারেননি। ২২ শতাংশের মেসেজ রিসিভে ঝামেলা হয়।
এন এ/ ২১ আগস্ট

সূত্রঃ দেশে বিদেশে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: